ফ্ল্যাশব্যাক : সুপার সাকিবে অজিদের হারানো

0

টেস্টের চতুর্থ দিনে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৫৬ রানের। উইকেটে থিতু হয়ে গেছেন দলের সেরা দুই ব্যাটসম্যান ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথ। একপর্যায়ে অজিদের দরকার ছিল সাত উইকেট হাতে নিয়ে ১০৭ রান। জয়ের স্বপ্ন ফিকে হওয়া শুরু, আরেকবার বুঝি তীরে এসে তরী ডুবান। হারাতে হারাতেও অজিদের বিপক্ষে হেরে যাওয়া!

না তা হয়নি, শেষমেশ জয়ের বুনো উল্লাসে মেতেছিল সবাই। একজন যে বিশ্বাস কররেছিল এখনো জেতা যাবে, হারানো যাবে অজিদের। শতক করা ডেভিড ওয়ার্নারকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে চতুর্থ দিনের প্রথম উইকেটের পতন শুরু। এরপরে জয়ের পথের আরেক বড় কাঁটা স্টিভেন স্মিথকে মুশফিকের ক্যাচ বানিয়ে ফেরান সাকিব।

পাঁচ উইকেট হাতে নিয়ে জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার প্রয়োজন ছিল ৭৭ রানের। ম্যাথু ওয়েডকে আউট করে আরেকবার অজিদের দেন ধাক্কা! ওয়েডকে আউট করে শিশুদের মতো সাকিবের নেচে ওঠা যেন এখনো চোখে ভাসে, জয় থেকে যে আর চার কদম হাঁটা বাকী।

লাঞ্চের প্রথম বলে বোল্ড করে ভয়ংকর হয়ে ওঠার আগে ফেরালেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে। আউট করে সাকিবের বুঝি উড়তে ইচ্ছে হল! দু হাত প্রসারিত করে কিছুক্ষণ উড়লেন। সাকিবকে বলতে ইচ্ছে করছিল; ‘সুপারম্যানের উড়তে ইচ্ছে করে আবার? গত এক দশক ধরে এদেশের ক্রিকেট আকাশে তো সুপারম্যান হয়েই আছেন, উড়ছেন!’

ম্যাক্সওয়েলকে ফেরানোর পর পূর্ণ হয় ইনিংসে পাঁচ উইকেট আর ম্যাচে দশ উইকেট। একইসঙ্গে আরেকটি রেকর্ড এসে কুর্নিশ করে সাকিবকে। চতুর্থ বোলার হিসেবে সবকয়টি টেস্ট খেলুড়ে (৯দল) দলের বিপক্ষে ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেওয়ার কীর্তি।

১৯৯ রানে আট উইকেট খোয়ানো অস্ট্রেলিয়া টেলএন্ডারদের ব্যাটে চড়ে শেষমেশ থামে ২৪৪ রানে। বাংলাদেশ পায় ২০ রানের জয়। টেস্টে প্রথমবার অজিদের হারানোর বীরত্বকাব্য লিখতে সাকিবের প্রথম ইনিংসে ৮৪ আর ম্যাচে দশ উইকেট, তামিমের ৭১,৭৮ রানের দুটো ইনিংস আর তাইজুল, মিরাজের সাকিবকে যোগ্য সমর্থন দেওয়া বোলিং ছিল গুরুত্ববহ।

ম্যাচ সেরার পুরষ্কার নিতে এসে সাকিব জানালেন সে যে এই ম্যাচ জেতাতে পারে তার ওপর একজন বড় আস্থা রেখেছিল আগের রাতে। তিনি সাকিবপত্নী উম্মে আহমেদ শিশির। শিশির বলেছিলেন; ‘এই ম্যাচ তুমি (সাকিব) জেতাত পার!’ শেষমেশ শিশিরের কথা সত্যি করেছিলেন সাকিব আল হাসান।

সাকিবের আরেকবার সুপারম্যান বনে যাওয়া, আরেকবার জয়ের পার্থক্য গড়ে দেওয়া, অজিদের টেস্টে হারানোর দারুণ এক কীর্তি ২০১৭ সালের আজকের দিনে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here